স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ এরচেয়ে ধীরগতির হবে অ্যাপলের এ১৪ বায়োনিক

 

গত সপ্তাহে টাইম ফ্লাইস ইভেন্টে নতুন আইফোন ও আইপ্যাডের জন্য নতুন প্রজন্মের এ১৪ বায়োনিক প্রসেস চিপসেট উন্মোচন করেছিল মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপল। চিরাচরিত ভাবে আ্যপলের প্রসেসর অন্য প্রতিযোগীদের থেকে অনেকটাই এগিয়ে থাকে। তবে সম্ভবত এবার তার ব্যতিক্রম হতে চলেছে। জানা গিয়েছে প্রতি বছর অন্যান্য ফ্ল্যাগশিপ চিপগুলোর চেয়ে পাওয়ারফুল হলেও, এবারের অ্যাপলের এ১৪ বায়োনিক চিপসেট কিছুটা পিছিয়ে থাকতে পারে প্রতিদ্বন্ধিদের তুলনায়।

রিউমার অনুযায়ী, চলতি বছর এ১৪ বায়োনিক চিপসেটের সাথে iPhone 12 সিরিজের চারটি আইফোন রিলিজ করবে অ্যাপল। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি জনপ্রিয় টিপ্সটার ‘আইস ইউনিভার্স’ টুইটারে প্রকাশ করেছেন করেছে আপকামিং iPhone 12 Pro Max আনটুটু বেঞ্চমার্ক স্কোর। লিক হওয়া তথ্য অনুযায়ী, এ১৪ বায়োনিক চিপসেট এবং ৬ জিবি র‌্যাম কনফিগারেশনের সাথে iPhone 12 Pro Max স্কোর করেছে ৫৭২,৩৩৩।

 

যেখানে চলতি বছরের অন্যতম শক্তিশালী চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ চালিত Xiaomi Mi 10 Ultra’র আনটুটু স্কোর ৬৪৬,৭৩০ এবং ৮৬৫+ Asus ROG Phone 3’র স্কোর ৬২৯,২৪৫। ধারণা করা হচ্ছে, এবার সম্ভবত আ্যাপল তাদের নতুন চিপসেটে পারফরম্যান্স এর চেয়ে পাওয়ার এফিশিয়েন্সির দিকে বেশি মনোযোগ দিয়েছে। কেননা স্মার্টফোনের জন্য খুব কম আ্যাপই আছ, যা একটি চিপসেটের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে সক্ষম।

এ১৪ বায়োনিক

তাছাড়া এ১৪ চিপসেটে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স কোরের ব্যপক উন্নতি করেছে আ্যপল। তাই মনে করা হচ্ছে বেশি এনার্জি খরচ করার থেকে স্মার্টভাবে কম এনার্জি খরচের দিকে ঝুঁকছে আ্যপল। তবে এসবকিছুই এখনো কেবলই একটি গুজব। সুতরাং iPhone 12 সিরিজ বাজারে না আসা পর্যন্ত কিছু নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post