শীগ্রই আসছে ১০০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং টেকনোলজি

 

২০২০ সালে এসে মর্ডার্ন যুগের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি নতুন এক উচ্চতায় পৌঁছেছে। চিনা স্মার্টফোন ব্র‍্যান্ড শাওমি তাদের ফ্ল্যাগশিপ Mi 10 Ultra এবং ভিভো তাদের IQOO 5 Pro’তে ব্যবহার করেছে পরবর্তী প্রজন্মের ১২০ ওয়াট চার্জিং প্রযুক্তি। অন্যদিকে মার্কিন টেক জায়ান্ট কোয়ালকমপি পিছিয়ে নেই, তারা ইতোমধ্যে অ্যানাউন্স করেছে Quick Charge 5 টেকনোলজি, যা স্মার্টফোনে ১০০ ওয়াট চার্জিং সাপোর্ট দিতে সক্ষম হবে।

ওয়্যারলেস চার্জিং

প্রতিনিয়ত ওয়্যারড চার্জিংয়ে নতুন নতুন উদ্ভাবন এলেও তুলনামূলক ভাবে ওয়্যারলেস চার্জিং প্রযুক্তি কিছু পিছিয়ে। তবে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি পাচ্ছে ওয়্যারলেস চার্জিং প্রযুক্তিও। এখানেও এগিয়ে আছে চাইনিজ টেক জায়ান্ট শাওমি, কেননা তাদের Mi 10 Ultra স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৫০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট। যদিও ইতোমধ্যে ৫৫ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং টেকনোলজিও লঞ্চ করেছে শাওমি, কিন্তু এই প্রযুক্তি সাপোর্টেড ডিভাইজ এখনো বাজারে আসেনি।

 

এরই ধারবাহিকতায় সম্প্রতি চাইনিজ টিপস্টার, ‘Digital Chat Section’ নিশ্চিত করেছে, শাওমি, ওয়ানপ্লাস ও ভিভোর মতো চাইনিজ কোম্পানি ২০২১ সালের মধ্যে ১০০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা ধরেছে। উল্লেখ্য ওয়ানপ্লাস ইতিমধ্যে ৬৫ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং আনার ঘোষণা দিলেও তা এখনো অফিসিয়ালি লঞ্চ করা হয়নি। গত জুলাইয়ে ৬৫ ওয়াট ‘এয়ারভুক’ ওয়্যারলেস চার্জিং আনার ঘোষণা দেয় ওয়ানপ্লাস, যা ৪,০০০ এমএএইচ ব্যাটারিকে ৩০ মিনিটের মধ্যে ফুল চার্জ করতে সক্ষম হবে।

অন্যদিকে চলতি বছরই রিয়ালমি, শাওমি, অপ্পো ও ভিভো অ্যানাউন্স করেছিল তাদের ১২০ ও ১২৫ ওয়াট ক্যাপাবল ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি। কোম্পানিগুলোর দাবি, এই এই ফাস্ট চার্জিং অ্যাডাপ্টারটি মাত্র ১২-১৫ মিনিটের মধ্যে ৪,০০০ এমএএইচ ব্যাটারী ০ থেকে ১০০% পর্যন্ত ফুল চার্জ করতে পারবে। ধারণা করা হচ্ছে আগামী বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে এসব কোম্পানির ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলোতে ব্যবহৃত হবে ১২০ ও ১২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি।

বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post