iPhone 12’র স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্টের জন্য গুনতে হবে ২৩,০০০ টাকা

 

গত সপ্তাহেই লঞ্চ হয়েছে আ্যপলের সর্বশেষ আইফোন লাইনআপ iPhone 12 সিরিজ। এবারে iPhone 12 সিরিজে চারটি মডেলের নতুন আইফোন লঞ্চ করেছে আ্যপল। এবং এবারের iPhone 12 সিরিজে সবগুলো ডিভাইজেই ব্যবহৃত হয়েছে OLED ডিসপ্লে প্যানেল। মূলত পুর্ববর্তী “বাজেট আইফোনে” যেমন iPhone XR এবং iPhone 11-এ সাধারণ LCD ডিসপ্লে এবং প্রিমিয়াম ফোনগুলোতে OLED ডিসপ্লে ব্যবহার করতো আ্যপল।

iPhone 12

তবে এবার কমপ্যাক্ট iPhone 12 mini থেকে শুরু করে হাই-এন্ড iPhone 12 Pro Max সবগুলোতেই Super Retina XDR ডিসপ্লে প্যানেল দেওয়া হয়েছে। কিন্তু নতুন আইফোনে ব্যবহৃত এই হাই কোয়ালিটি ডিসপ্লেটিতে যদি দুর্ঘটনাজনিত ড্যামেজ কিংবা সমস্যা হলে তা রিপ্লেস করার জন্য ব্যবহারকারীদের বেশ মোটা অঙ্কের টাকা গুণতে হবে। সম্প্রতি iPhone 12 এবং iphone 12 Pro এর স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্ট খরচ প্রকাশ করেছে আ্যপল। যা দেখে চোখ কপালে ওঠা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

 

আ্যপলের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুসারে, আমেরিকায় iPhone 12 এবং iphone 12 Pro স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্ট ও রিপেয়ারিং এর জন্য গ্রাহকদের গুনতে হবে ২৭৯ ডলার (প্রায় ২৩,৬০০ টাকা)। যেখানে গত বছরের iPhone 11 এর স্ক্রিন রিপ্লেসের কষ্ট ছিলো ১৯৯ ডলার। উল্লেখ্য, আ্যপল শুধু iPhone 12 এবং iphone 12 Pro এর খরচ তাদের ওয়েবসাইটে তালিকাভুক্ত করেছে। তাছাড়া কম্প্যাক্ট সাইজের iphone 12 mini এবং সবথেকে বড় iPhone 12 Pro Max এর স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্ট খরচ সংক্রান্ত কোনো তথ্য এখনো প্রকাশ করেনি আ্যপল।

এখানে লক্ষণীয় যে, এই দাম কেবলমাত্র ওয়ারেন্টি শেষ হয়ে যাওয়া আইফোনের মডেলের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। তাই ব্যবহারকারীদের উচিত হবে নতুন আইফোনের সাথে একটি গ্লাস প্রোটেক্টর ও কিনে ফেলা। নাহলে আইফোন সারানোর টাকা দিয়ে অনায়াসে একটি আ্যন্ড্রোয়েড ফোন কিনে নেওয়া সম্ভব । তবে, নতুন iphone 12 এর সাথে যদি Apple Care+ সাবস্ক্রিপশন নেওয়া থাকে তাহলে স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্টের জন্য কেবল সার্ভিস চার্জ দিলেই চলবে।

বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post