স্যামসাংয়ের পরবর্তী ফোনের দু’পাশেই থাকবে সারাউন্ডেড ডিসপ্লে

 

বর্তমানে বিশ্বের শীর্ষ স্থানীয স্মার্টফোন ব্র্যান্ড স্যামসাং। নিজেদের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে প্রায় প্রতি মাসেই নতুন নতুন স্মার্টফোন লঞ্চ করে যাচ্ছে স্যামসাং। অন্যান্য গ্যালাক্সি পাশাপাশি এবার পরবর্তী প্রজন্মের উদ্ভাবনী ফ্লেক্সিবল ডিসপ্লে যুক্ত স্মার্টফোন তৈরিতে কাজ শুরু করেছে দক্ষিন কোরীয় এই টেক জায়ান্টটি। সম্প্রতি লিক হওয়া নতুন পেটেন্ট অনুসারে, স্যামসাংয়ের আপকামিং এই স্মার্টফোনটিতে থাকবে সারাউন্ডেড ডিসপ্লে এবং ট্রান্সপারেন্ট কেসিং। জানা যায়, ফোনটির স্ক্রিন টু বডি রেশিও হবে ১০০ শতাংশ।

লেটসগোডিজিটালের বরাতে দিয়ে সংবাদমাধ্যম ডাচ মিডিয়া জানিয়েছে, সম্প্রতি চারদিকে ডিসপ্লে মোড়ানো একটি স্মার্টফোনের পেটেন্ট নিয়েছে স্যামসাং। “Electronic Device” শিরোনামের ৭০ পৃষ্ঠার এ পেটেন্ট অনুসারে ডিভাইসটিতে কোনো ফিজিক্যাল বাটন থাকছে না, ফোনটিতে বিশেষ চমক হিসেবে রয়েছে স্লাইডিং মেকানিজম। স্যামসাংয়ের দেয়া তথ্যমতে ডিভাইসটির বডিতে কোনো বেজেল থাকছে না। পেটেন্ট দেখা যাচ্ছে ফোনটির ব্যাক ও ফ্রন্ট উভয় পাশেই থাকছে ১০০ শতাংশ স্ক্রিন টু বডি রেশিও সমৃদ্ধ সারাউন্ডেড ডিসপ্লে।

 

এছাড়া এতে সম্পূর্ণ ট্রান্সপারেন্ট কেসিং ব্যবহৃত হচ্ছে। পেটেন্ট অনুসারে ডিভাইসটি পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে পারবে। স্যামসাংয়ের আপকামিং এই ফুল ডিসপ্লে স্ক্রিন সম্বলিত এই ফোনটিতে আরও থাকবে আন্ডার ডিসপ্লে ফ্রন্ট ক্যামেরা, এবং ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। তাছাড়া এর মধ্যে ব্যবহৃত হয়েছে উন্নত স্লাইডিং মেকানিজম। কোম্পানি জানিয়েছে,ইউনিক এই স্লাইডিং মেকানিজম এর মধ্যেই লুকায়িত থাকবে ফোনটির প্রাইমারি রিয়ার ক্যামেরা।

ধারণা করা হচ্ছে স্যামসাংয়ের এই ফোনটি হতে চলেছে একটি গেম-চেঞ্জিং ডিভাইজ। তবে স্যামসাংয়ের ফিউচারিস্টিক ডিজাইনের এই ফোনটি নিকট ভবিষ্যতে এর বাজারে আসার সম্ভাবনা খুবই কম, কারন এখনও এটি কনসেপ্ট স্টেইজে রয়েছে। কিন্তু যখন ফোনটি বাজারে আসুক না কেন, তখন যে এই দাম আকাশ চুম্বি হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশ্লেষকদের মতে এ ধরনের ডিভাইজ আগামী কয়েক দশক পর বেশ জনপ্রিয়তা ও সহজলোভ্যতা পাবে।

বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post