তৃতীয় প্রান্তিকে স্মার্টফোন শিপমেন্টের রেকর্ড করেছে শাওমি

Bkash Bkash Bkash

চলতি বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপলকে টপকে বিশ্বজুড়ে সর্বাধিক স্মার্টফোন শিপমেন্টের তালিকায় শীর্ষ তিনে জায়গা করে নিয়েছে শাওমি। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি  এ সময়ে শাওমির স্মার্টফোন বিক্রি ফাইনান্সিয়াল রিপোর্ট। রিপোর্ট অনুযায়ী, বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে গ্লোবালি ৪৬.৬ মিলিয়ন স্মার্টফোন শিপমেন্টের মাইলফলক অর্জন করেছে শাওমি। এ সময়ে প্রায় ৪৭.৬ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান (প্রায় ৬১,৩০০ কোটি টাকা) সমমূল্যের স্মার্টফোন সরবারহ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই সময়কালে বছরের এক-চতুরতার্ধে এখন পর্যন্ত শাওমির সর্বাধিক ও রেকর্ড পরিমান স্মার্টফোন শিপমেন্টও বটে। এছাড়া গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২০২০ সালে ৪৫.৩% প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে শাওমি। অন্যদিকে বছরের থার্ড কোয়ার্টারে গ্লোবালি ১৩.৫ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে বিশ্বের তৃতীয় বৃহৎ স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে শাওমি।

Bkash Bkash Bkash

শাওমির প্রতিষ্ঠাতা ‘লিই জুন’ কর্তৃক ওয়েইবো’তে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে, বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে সর্বমোট ৭২.২ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান (প্রায় ৯৩,১০০ কোটি টাকা) সমমূল্যের রেভেনিউ অর্জন করেছে শাওমির। যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৪.৫ শতাংশ বেশি। মোট রেভেনিউর এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা হয়েছে ৪.১ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান (প্রায় ৫,২০০ কোটি টাকা)। গত বছরের তুলনায় ইয়ার-অন-ইয়ার ১৮ শতাংশ বেড়েছে।

এছাড়া বছরের ১ জুলাই থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর মাসে শাওমির মোট রেভিনিউ এর বেশির ভাগই এসেছে ব্র্যান্ডটির প্রিমিয়াম স্মার্টফোনগুলো থেকে। রিপোর্ট অনুযায়ী, Mi লাইনআপের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইজগুলো থেকে গড়ে ১,০২২ ইউয়ান (প্রায় ১৩,১০০ টাকা) মুনাফা অর্জন করেছে শাওমি। তাছাড়া শাওমির অফিসিয়াল ফাইনান্সিয়াল রিপোর্ট থেকে আরও জানা যায়, বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে শাওমির মোট রেভিনিউ এর মধ্যে ৩৯.৮ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান (প্রায় ৫১,৩০০ কোটি টাকা)  বাহিরের দেশগুলো থেকে।

বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂

Bkash Bkash Bkash



যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post