অনার ব্র্যান্ডের মালিকানা বিক্রি করলো হুয়াওয়ে

 

বেশ কিছু দিন ধরেই কানাঘুষা চলছিল , হুয়াওয়ে নিজেদের সাবসিডিয়ারি আনার ব্র্যান্ড বিক্রি করে দিচ্ছে। বিভিন্ন কোম্পানি যে অনার কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করছিলো, শোনা যাচ্ছিল মোবাইল ব্র্যান্ড শাওমি এবং টিএসএলও ছিল সম্ভাব্য ক্রেতা তালিকায়। যদিও হুয়াওয়ে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি এতদিন। তবে অবশেষে সত্য হয়েছে এই গুজব। জানা যায়, জিক্সিন নিউ ইনফরমেশন টেকনোলজির কাছে অনারের সত্ত্ব বিক্রি করে দিয়েছে হুয়াওয়ে‌। তবে ঠিক কত টাকায় অনার ব্র্যান্ড এর মালিকানা বিক্রি করেছে হুয়াওয়ে এই বিষয়ে কোনো নিশ্চিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

অনার ব্র্যান্ডে

তবে শোনা যাচ্ছে ১৫.২ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে অনার ব্র্যান্ডের সমস্ত রিসার্চ, ডেভেলপমেন্ট, সাপ্লাই চেইন ইত্যাদি মালিকানা কিনে নিয়েছে জিক্সিন নিউ ইনফরমেশন টেকনোলজিস, যার প্যারেন্ট কোম্পানির নাম হচ্ছে কনসোর্টিয়াম। এই কোম্পানিটি মূলত অনার ব্র্যান্ডেরই ত্রিশ জন এজেন্ট ও ডিলার এবং শেনজেন স্মার্ট সিটি ডেভেলপমেন্ট ইউনিটের সমন্বয়ে গঠিত বলে বিবৃতিতে জানা গেছে‌। কনসোর্টিয়াম আরও জানিয়েছে তারা বাজারের সকল নিয়ম অনুযায়ী নিরপেক্ষতভাবে অন্যান্য এজেন্ট ও ডিলারদের মতোই সুষ্ঠু ব্যবসায়িক পরিবেশ সৃষ্টি করবে।

 

এই চুক্তিটি সম্পূর্ণ হওয়ার ফলে অনার ব্র্যান্ডের প্রোডাক্ট ব্র্যান্ডিং এবং সেলিংসহ সকল প্রকার অংশীদারিত্ব ও স্বত্ব হারাবে হুয়াওয়ে। মূলত মার্কিন নিষেধাজ্ঞার সঙ্কটময় এই সময়ে স্মার্টফোনের সব উপকরণ নিজেরাই তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে হুয়াওয়ে। তাই তাদের প্রয়োজন অনেক টাকা। এই টাকার যোগান দিতেই অনার ব্র্যান্ডকে বিক্রয় করে দিয়েছে বলে ধারনা করেন প্রযুক্তি বাজার বিশেষজ্ঞরা। অন্যদিকে অনার ব্র্যান্ড হুয়াওয়ের থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ায় মার্কিন বাজারে কোনো বিধিনিষেধের মুখে পড়বেনা বলেই আশা করা হচ্ছে।

অনার ব্র্যান্ডে

২০১৩ সালে হুয়াওয়ের সাব-ব্র্যান্ড হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিল অনার ব্র্যান্ড। শুরু থেকেই এর ভালো বিল্ড কোয়ালিটি ও সফটওয়্যার অপটিমাইজেশনের জন্য প্রযুক্তি বিশ্বে ধীরে ধীরে বেশ জনপ্রিয় হয়ে গিয়েছে অনার। অনার মূলত হুয়াওয়ের সাব-ব্র্যান্ড হলেও এতদিন প্যারেন্ট কোম্পানি হুয়াওয়েকে পাল্লা দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছিলো অনার। তবে হুয়াওয়ে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ার পর নিশ্চিতভাবেই সংকটের মুখে পড়ে অনারের ভবিষ্যত। তাই অনারের এই বিশাল চাপ সামলানো কঠিন বলেই নিজেদের এই ইউনিট বিক্রি করতে চলেছে হুয়াওয়ে।

বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post