বিভ্রান্তিমূলক প্রচারের অভিযোগে অ্যাপলকে ১২ মিলিয়ন ইউরো জরিমানা

Bkash Bkash Bkash

মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপলের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার কিংবা মার্কেটিং গিমিক নিয়ে অভিযোগ নতুন কিছু নয়। বাজারে নিজেদের পণ্যের অপপ্রচারের কারণে বিভিন্ন সময়ে জরিমানার সম্মুখীনও হতে হয়েছে অ্যপলকে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার এই ইস্যুকে কেন্দ্র করে আবার বিশাল অঙ্কের জরিমানার মুখে পড়তে যাচ্ছে শীর্ষ স্থানীয় এই স্মার্টফোন ব্র্যান্ডটি। সম্প্রতি অ্যাপলের বিরুদ্ধে ‘আগ্রাসী ও বিভ্রান্তিমূলক’ মার্কেটিং এর অভিযোগ এনে ১২ মিলিয়ন ইউরো জরিমানা করেছে ইতালি।

অ্যাপল

অ্যাপলের বিরুদ্ধে এই মিথ্যাচারের অভিযোগ এনেছে AGCM নামের ইতালিয়ান অ্যান্টিট্রাস্ট কম্পিটিশন অথরিটি। ET এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, অ্যাপলকে মূলত দায়ী করা হয় এই জন্য যে, তাদের ডিভাইজ পর্যাপ্ত পানিরোধী ক্ষমতা না থাকা সত্ত্বেও এসব ডিভাইজগুলোকে ওয়াটার রেসিন্ট্যান্ট বলে প্রচার করছে প্রতিষ্ঠানটি। AGCM জানিয়েছে, অ্যাপলের iPhone 8, iPhone 8+, iPhone XR, iPhone XS, iPhone XS Max, iPhone 11, iPhone 11 Pro ও iPhone 11 Pro Max মডেলগুলোতে এই ধরণের ইস্যু দেখা গেছে।

Bkash Bkash Bkash

অভিযোগে বলা হয়, উল্লেখিত আইফোনগুলো কেবলমাত্র নির্দিষ্ট কিছু পরিবেশেই পানিরোধী ছিলো কিন্তু অ্যাপল সেটা তাদের বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করেনি কিংবা গ্রাহকদের কাছে এ বিষয় পরিষ্কার কিছু বলেনি। মূলত এই আইফোন মডেলগুলো পানির নিচে চার মিটার গভীরতায় ৩০ মিনিট পর্যন্ত অক্ষত থাকতে পারে, কিন্তু স্বাভাবিক অবস্থায় অর্থাৎ ইউজাররা যখন এই ডিভাইসগুলো ব্যবহার করেন তখন এর ওয়াটার রেসিন্ট্যান্ট বৈশিষ্ট্যটি ততটাও কার্যকরী হয় না।

অন্যদিকে এসব আইফোনের ওয়ারেন্টি সার্ভিসেও অ্যাপল বলে রেখেছে যে, কোনো তরল পদার্থের কারণে আইফোন ক্ষতিগ্রস্থ হলে তা ওয়ারেন্টি এর আওতায় থাকবে না। যা পরিষ্কার ভাবেই গ্রাহকদের সাথে একধরনের প্রতারণা। এই বিষয় নিয়ে অ্যাপলের কাছে জানতে চাওয়া হলেও তারা কোনো ধরনের মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। এখন শুধু দেখার অপেক্ষা নতুন এই ইস্যুতে অ্যাপলের প্রতিক্রিয়া কেমন হয়।

বন্ধুদের সাথে পোস্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂

Bkash Bkash Bkash

ক্রেডিট




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post