নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম আনার কথা ভাবছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

 

একের পর েকে উস্কানিমূলক মন্তব্যের কারণে ইতোমধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক-টুইটার থেকে ব্যান হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সম্প্রতি টুইটার কর্তৃপক্ষ রিয়েলডোনাল্ড ট্রাম্প (@realDonaldTrump) অ্যাকাউন্টটি পার্মানেন্টলি বন্ধ করে দেওয়ার পর ট্রাম্প এই প্রতিক্রিয়ায় ইঙ্গিত দেন যে, এবার নিজস্ব কোনো সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম চালুর পরিকল্পনা করছেন তিনি।

(@realDonaldTrump) অ্যাকাউন্টটি স্থগিত হওয়ার পর হোয়াইট হাউজের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, “যা আমি বহুদিন ধরেই বলে আসছি… মত প্রকাশের স্বাধীনতা না দেওয়ার ব্যাপারে টুইটার আরও অনেকদূর এগিয়েছে এবং আজ রাতে টুইটারের কর্মচারীরা ডেমোক্রেটস ও র‌্যাডিকাল বামদের সঙ্গে মিলে আমাকে এবং আপনাকে, ৭ কোটি ৫০ লাখ মহান দেশপ্রেমিক যারা আমাকে ভোট দিয়েছেন, তাদেরকে চুপ করিয়ে দিতে তাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে আমার অ্যাকাউন্ট সরিয়ে দিয়েছে।”

 

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আরও বলেন, ‘আমরা অন্যান্য বিভিন্ন সাইটের সঙ্গে আলোচনা করেছি এবং শীগগির একটি বড় ঘোষণা নিয়ে আসব। অদূর ভবিষ্যতে আমরা নিজস্ব সামাজিক যোগাযোগ প্ল্যাটফর্ম তৈরিতেও নজর দিচ্ছি। আমরা নীরব থাকব না!’ তিনি আরও জানান, ‘টুইটার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হতে পারে, তবে সরকারে ২৩০ অনুচ্ছেদের উপহার না থাকলে তারা বেশি দিন টিকে থাকতে পারবে না।’

এই টুইট করেও ছাড় পাননি ট্রাম্প। মিনিট দুয়েকের মধ্যে ডিলিট করে দেয় টুইটার। এতটুকু সময়েই অনেক সাংবাদিক স্ক্রিনশট রাখতে সক্ষম হন। এদিকে টুইটারের বিকল্প সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হিসেবে ‘গ্যাব’ প্লাটফর্মটিকে বেছে  ট্রাম্প। গ্যাব প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও অ্যান্ড্রু তোরবা ট্রাম্পের সমর্থক। তিনি জানান, প্রেসিডেন্টের টুইটার বন্ধ হওয়ার পর থেকে সাইটটি রেকর্ডসংখ্যক ট্র্যাফিক পেয়েছে।

বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂

ক্রেডিট




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post