অফিসিয়ালি লঞ্চ হয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ ৫জি চিপসেট

 

২০২০ সালে আইএফএ’তে মার্কিন টেক জায়ান্ট কোয়ালকম জানিয়েছিলো তারা ৫জি প্রযুক্তি সকলের জন্য সহজলভ্য করতে কাজ করছে। ২০২১ সাল শুরু হতে না হতেই তারা প্রথম এন্ট্রি লেভেল ৫জি চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ উন্মোচনের মাধ্যমে নিজেদের প্রতিশ্রুতি রেখেছে কোয়ালকম। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি স্ন্যাপড্রাগন ৪০০ সিরিজের সর্বপ্রথম ৫জি চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ লঞ্চ করেছে কোম্পানি।

কোয়ালকম জানিয়েছে, স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ চিপসেটটি স্ন্যাপড্রাগন ৬৯০ এবং স্ন্যাপড্রাগন ৭৫০জি একই জেনারেশনের চিপসেট। আর এদের মাধ্যমেই ৫জি প্রযুক্তি সহজলভ্য করার যাত্রা শুরু করেছে কোয়ালকম। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের ধারণা মিডিয়াটেকের ডাইমেনসিটি ৭২০ চিপসেট এর প্রতিদ্বন্ধীর ভূমিকায় নতুন স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ চিপসেটটি বাজারে এনেছে কোম্পানি। ৮ ন্যানোমিটার ফ্যাব্রিকেশন প্রসেসে তৈরি এই চিপসেটটি একটি অক্টা-কোর প্রসেসর।

 

স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ চিপসেটে ব্যবহার করা হয়েছে ২টি ২ গিগাহার্জ এর kryo 460 গোল্ড কোর এবং ৬ টি ১.৭ গিগাহার্জ এর সিলভার কোর। এতে জিপিইউ হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যাড্রেনো ৬১৯ জিপিইউ, যা এর আগেও স্ন্যাপড্রাগন ৭৫০জি তে দেখা গিয়েছিলো। কোয়ালকম নিশ্চিত করেছে, স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ এ থাকছে ফুলএইচডি প্লাস রেজ্যুলেশন ডিসপ্লের সাথে ১২০ হার্জ রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট। তাছাড়া এআই পারফর্মেন্স পূর্বের জেনারেশনের তুলনায় এতে ৭০ শতাংশ ইমপ্রুভমেন্ট এনেছে কোয়ালকম।

এছাড়া চিপসেটটি স্পেকট্রা ৩৪৫ আইএসপি তিনটি ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা কিংবা একটি ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সাপোর্ট করবে। ভিডিও ক্যাপচারের ক্ষেত্রে এটি ১০৮০পি রেজ্যুলুশনে ৬০ এফপিএস পর্যন্ত ক্যাপচার করতে সক্ষম। এসবকিছুর পাশাপাশি স্ন্যাপড্রাগন ৪০০ সিরিজের প্রথম চিপসেট হিসেবে এতে থাকছে কোয়ালকম কুইক চার্জ ৪+ সাপোর্ট। কানেক্টিভিটির জন্য এতে রয়েছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন এক্স৫১ মডেম যাতে ৫জি এর পাশাপাশি রয়েছে ব্লুটুথ ৫.১. ডুয়াল ফ্রিকোয়েন্সী জিপিএস এবং ওয়াইফাই ৬ সাপোর্ট।

বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post