গুগলে উন্মুক্ত হচ্ছে ইউজারদের হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার

ফেসবুক মালিকানাধীন বিশ্বের সবচেয়ে বড় ও জনপ্রিয় ইনস্ট্যান্ট ম্যাসেজিং প্লাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ এর জন্য ২০২১ সালটি সম্ভবত দুঃস্বপ্নের একটি বছর হতে যাচ্ছে। কিছুদিন আগে অ্যাপটির গোপিনীয়তা ও নীতিমালা পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পরে হোয়াটসঅ্যাপ।  কন্ট্রোভার্সির কারণে রাতারাতি লক্ষাধিক অ্যাক্টিভ ইউজার সরে আসে জনপ্রিয় এই ম্যাসেজিং অ্যাপ থেকে। এদিকে প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তনের সমালোচনার রেশ কাটতে না কাটতেই এ বছরে দ্বিতীয়বারের মতো আরেকটি মারাত্মক সমালোচনার মুখে পড়তে যাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ।

হোয়াটসঅ্যাপে সফটওয়্যারজনিত একটি মারাত্মক ত্রুটির কারণে হাজারো হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোন নাম্বার এখন পাবলিক সার্চে প্রকাশ হয়ে পড়ছে। অর্থাৎ গুগল সার্চের মাধ্যমেই যেকোনো হোয়াটসঅ্যাপ ইউজারের পরিচিতি পাবলিকলি লিক হয়েছে যাচ্ছ। এটি অবশ্যই যেকোনো ব্যবহারকারীর জন্য একটি ভয়াবহ সংবাদ। হোয়াটসঅ্যাপে এই ত্রুটির কারণে হ্যাকিং কিংবা স্পামিংয়ের ঝুঁকিতে পড়েছে ভুক্তভুগি ইউজাররা। কেননা একজন হ্যাকার কিংবা স্প্যামার চাইলেই আপনাকে একটি গুগল সার্চের মাধ্যমে শনাক্ত করে ফেলতে পারবে।

সমস্যাটির সূত্রপাত হয় হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এর সাথে গুগলের লিংক করাকে কেন্দ্র করে। গুগলে লিংক করার সময় মূলত ইউজারদের পরিচিতি তথ্য গুগলের সার্চ ইনডেক্সে যুক্ত হয়ে পড়ে। যার ফলে সার্চ রেজাল্টেই অনাকাঙ্খিত ভাবে প্রকাশ হয়ে যাচ্ছে ব্যবহারকারীদের আইডেন্টিফিকেশন। যদিও বিশেষজ্ঞদের মতে, হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের প্রাইভেসি সেটিংস এর উপর ব্যবহারকারীদের প্রাইভেসি অনেকটাই নির্ভর করে আছে।

উল্লেখ্য, আপনি যদি হোয়াটসঅ্যাপ এর ওয়েব ভার্সন ইউজার না হয়ে থাকেন তবে আপনি অনেকটাই নিরাপদ রয়েছেন এখন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপ এখনো এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে অফিশিয়াল কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। তবে কোম্পানি যদি তাদের প্রাইভেসি পলিসি ফিক্স না করে তবে হয়তো জনপ্রিয়তার শীর্ষ থেকে তলানিতে নেমে আসতে হতে পারে ইউজারদের এন্ড-টু-এন্ড নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি দেওয়া জনপ্রিয় এই ম্যাসেজিং অ্যাপটিকে।




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post