চীনের সর্ববৃহৎ স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হয়ে উঠেছে শাওমি

 

কথায় আছে – কারো পৌষ মাস, কারো সর্বনাশ। এই মূহুর্তে এই প্রবাদটির মাধ্যমেই চীনের স্মার্টফোন বাজারের হালচাল সংক্ষেপে বলা সম্ভব। মূলত মার্কিন-চীন বাণিজ্যযুদ্ধের কবলে পড়ে হুয়াওয়ের বাজার থেকে ছিটকে যাওয়ার সুযোগকে ভালো ভাবেই কাজে লাগাচ্ছে শাওমি, ওপ্পোর মতো প্রতিদ্দন্ধী স্মার্টফোন ব্র‍্যান্ডগুলো। মনে আছে নিশ্চই, গত জানুয়ারীতে চীনে হুয়াওয়েকে পিছনে ফেলে ওপ্পো বেস্টসেলিং ব্র‍্যান্ড হয়ে উঠেছেছিলো।

এবার কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চ বলছে, ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে শাওমি বিশ্ববাজারে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে যা চীনা ব্র‍্যান্ড হিসেবে প্রথম। ফেব্রুয়ারী মাসে শাওমি বিশ্বব্যাপী ১৩% শেয়ার দখল করে তৃতীয় হয়েছে । প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানে যথারীতি স্যামসাং এবং অ্যাপল ২০% এবং ১৭% শেয়ার ধরে রেখেছে । অন্যদিকে একসময় সেরা তিনে থাকা হুয়াওয়ের মার্কেট শেয়ার মাত্র ৪ শতাংশ।

 

বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন, শাওমি তাদের এই অগ্রগতি ধরে রাখলে ২০২১ সালের মধ্যেই বিশ্বের সেরা তিনটি স্মার্টফোন ব্র‍্যান্ডের একটি হয়ে উঠতে পারবে তারা। এখানে লক্ষণীয়, শাওমি মূলত এন্ট্রি লেভেল এবং মিডরেঞ্জ স্মার্টফোনের জন্য জনপ্রিয় হলেও হুয়াওয়ে পতনের পর থেকে তারা স্ট্র‍্যাটেজিতে পরিবর্তন এনেছে। এখন শাওমি তাদের সকল প্রিমিয়াম স্মার্টফোন চীনের বাইরে ইউরোপের বাজারে প্রথম রিলিজ করছে।

এদিকে এই ইউরোপীয় বাজারই একসময় হুয়াওয়ের অন্যতম শক্ত ঘাঁটি ছিলো। বৈশ্বিক বাজারে হুয়াওয়ের প্রিমিয়াম ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনগুলো সর্বাধিক বিক্রি হতো ইউরোপীয় অঞ্চলেই। কিন্তু মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে হুয়াওয়ে ডিভাইযে জিএমএস (গুগল মোবাইল সার্ভিস) না থাকায় স্বাভাবিক ভাবেই কমতে থাকে হুয়াওয়ে স্মার্টফোনের চাহিদা। তাই এখন হয়তো শাওমির লক্ষ্য হুয়াওয়ের স্থান যতদ্রুত সম্ভব দখলে নেয়া।

বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂




যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post