বাংলাদেশে স্মার্টফোন উৎপাদন করবে নোকিয়া

দারাজ বিজ্ঞাপন দারাজ বিজ্ঞাপন
ADVERTISEMENT

রিয়ালমি-অপ্পো এর মতো চীনা কোম্পানির পর এবার বাংলাদেশে নিজেদের স্মার্টফোন উৎপাদনের ঘোষণা দিয়েছে ফিনল্যান্ড ভিত্তিক বিখ্যাত স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নোকিয়া এর প্যারেন্ট কোম্পানি এইচএমডি গ্লাবাল। সম্প্রতি গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নোকিয়ার মূল সংস্থা এইচএমডি গ্লোবালের ব্যবসায়িক বিভাগের প্রধান ফারহান রশিদ। এরই মধ্যে বিটিআরসি (বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন) এর কাছ থেকে অনুমতি পেয়েছে নোকিয়া।

এইচএমডি গ্লোবাল এর অধীনস্ত হওয়ার পর ২০১৮ সালে বাংলাদেশে অফিসিয়ালি লঞ্চ হয়েছে নোকিয়ার স্মার্টফোন ও ৪জি ফিচার ফোন। এরই ধারাবাহিকতায় দেশি গ্রাহকদের স্মার্টফোন চাহিদা মেটাতে এবার দেশেই স্মার্টফোন উৎপাদনের ঘোষণা দিয়েছে নোকিয়া। আগামী তিন বছরের জন্য দেশে নোকিয়ার এসব স্মার্টফোন উৎপাদনের অনুমোদন পেয়েছে দেশীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ভাইব্র্যান্ট সফটওয়্যার। জানা গিয়েছে , বাংলাদেশে গাজীপুরে হাই-টেক সিটি পার্কে ফ্যাক্টরিতে উৎপাদন করা হবে এসব স্মার্টফোন।

দারাজ বিজ্ঞাপন দারাজ বিজ্ঞাপন
ADVERTISEMENT

২০১৭ সাল থেকে বাংলাদেশে মোবাইল হ্যান্ডসেট উৎপাদন শিল্প যাত্রা শুরু করে। ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড ওয়ালটনই দেশে প্রথম ফোন উৎপাদন শুরু করেছিল। এরপর থেকে স্যামসাং, সিম্ফোনি, ওপ্পো, রিয়েলমিসহ মোট ১০টি ব্র্যান্ড দেশে মোবাইল ফোন উত্পাদন করতে শুরু করে। এই ব্র্যান্ডগুলো স্থানীয় বাজারে ৮৫ শতাংশ স্মার্টফোন উত্পাদন করে। তারা ৫৫ শতাংশ স্মার্টফোন ও ফিচার ফোনের স্থানীয় চাহিদা পূরণ করে থাকে।

বিটিআরসির তথ্যমতে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে দেশে মোবাইল হ্যান্ডসেটের মোট উত্পাদন ও আমদানি ছিল ২৯ দশমিক ৪৮ মিলিয়ন ইউনিট। এর মধ্যে ১৬ দশমিক ২১ মিলিয়ন ইউনিট স্থানীয়ভাবে ১০টি সংস্থা তৈরি করেছিল এবং আমদানি করা হয়েছিল ১৩ দশমিক ২৭ মিলিয়ন ইউনিট।

দারাজ বিজ্ঞাপন দারাজ বিজ্ঞাপন
ADVERTISEMENT



যেকোনো সমস্যা হলে গ্ৰুপে পোস্ট করলে অথবা পেজে মেসেজ দিলে সমাধান পেয়ে যাবেন 🔥🌺♥️🍀🌷
আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্য,

Comment

Previous Post Next Post